মঙ্গলবার, ১৬ Jul ২০২৪, ০২:৫২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
নরসিংদীতে ভূমি অধিগ্রহণের ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের মাঝে চেক বিতরণ নরসিংদী বেলাবতে ব্যবসায়ীর বাড়িতে হামলা,প্রায় ২০ লক্ষ টাকার ক্ষতি শিবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-এর. পক্ষ থেকে এমপিকে উষ্ণ সংবর্ধনা পলাশে তিন বছরের শিশু মাইশার লাস উদ্ধার আটক ৩ নরসিংদী জেলা শিবপুর উপজেলায় সরকারি ইটের সলিং রাস্তা উঠিয়ে ফেলেছে দুষ্কৃতকারীরা বীর মুক্তিযোদ্ধা সাবেক সংসদ সদস্য অকুতোভয় রাজনীতিক প্রখ্যাত সাংবাদিক কামাল হায়দার স্মরণে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত এশাআতে দ্বীন নু্রানী তালিমূল কোরআন ক্যাডেট মাদ্রাসার কৃতি শিক্ষার্থীদের মাঝে পু্রুষ্কার বিতরণ লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলাও করতে হবে……… আলহাজ্ব মোঃ সামসুল ইসলাম মোল্লা নরসিংদীর শিবপুর সাব রেজিস্ট্রার নেই ..হতাশায় গ্রাহক চিত্রশিল্পী আল-আমীনের আঁকা ছবি গুলো সংরক্ষণের প্রয়োজন
রায়পুরা জাহাঙ্গীরনগরে শালিশ দরবারের রায় উপেক্ষা করে অপপ্রচারের অভিযোগ

রায়পুরা জাহাঙ্গীরনগরে শালিশ দরবারের রায় উপেক্ষা করে অপপ্রচারের অভিযোগ

রায়পুরা প্রতিনিধি :      নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলার জাহাঙ্গীরনগর গ্রামে নুরুল ইসলাম গং ও আলাল জালাল মিয়া গং এর দুই পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন যাবত জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল । গত ৩ ই জুন ওলিপুরা ইউনিয়নের জাহাঙ্গীরনগর গ্রামে উভয় পক্ষের মধ্যে তুলাতুলি মৌজার সাবেক ১৭৮নং দাগের রূপান্তরিত আর এস ৩২৯ নং দাগে ভূমি সংক্রান্ত বিরোধী বিষয়বলি নিয়ে প্রদর্শিত কাগজপত্র পর্যালোচনার মাধ্যমে সালিশ অনুষ্ঠিত হয় ।উক্ত শালিশে সভাপতিত্ব করেন জয়নাল আবেদীন  । সালিশে আরও উপস্থিত ছিলেন সকল পক্ষের শুভাকাঙ্ক্ষী ,সমাজসেবী ,এলাকার প্রবীণ লোক ,যুবক, দলিল লেখক ,সার্ভেয়ার সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ।  শালিশী সভায় অলিপুরা ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য প্রস্তাব করেন সকল পক্ষদের মধ্যে কয়েক মাস যাবত জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে এভাবে বিরোধ থাকিলে উভয়পক্ষই হয়রানি ও আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে ।সমাজে শান্তি-শৃঙ্খলা বিঘ্ন হইবে সুতরাং সকল পক্ষের মধ্যে সৃষ্ট বিরোধ  আপস মীমাংসা করা হোক।সকল পক্ষ নিজেদের ভুল বুঝিতে পারিয়া স্থানীয় আপোষ মীমাংসা মানিয়ালয় । উভয় পক্ষের কাগজপত্র পর্যালোচনা করিয়া সালিশে সিদ্ধান্ত  সকল পক্ষ মানিয়া নেয় । প্রথম পক্ষ নুরুল ইসলাম সালিশি ভূমিতে ৬.৭৫ শতাংশ হইতে বাস্তব দখল মোতাবে ক ৫.১৩ শতাংশ ভূমি বর্তমান দখলে আছে ঠিক সেভাবেই ভোগ দখল বা ব্যবহার করবে এটাই শালিশির সিদ্ধান্ত ছিল । দ্বিতীয় পক্ষ মোঃ আলাল মিয়া গং নালিশা ভূমিতে ৫.২৫ শতাংশ হইতে বাস্তব দখলে ৪ দশমিক ৭৭ শতাংশ ভূমি বর্তমান দখলে আছে ঠিক সেভাবেই ব্যবহার বা  ভোগ দখল করবে এটাই শালিশির সিদ্ধান্ত ছিল । সালিশের সিদ্ধান্ত মোতাবেক   সার্ভার দ্বারা স্থানীয় মেম্বার ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে সকল পক্ষগনের মধ্যে সীমানা নির্ধারণ করে দেয়া হয় । স্থানীয় আপোসের সূত্রে সকল পক্ষ সালিশ মানিয়া চলিবে বলে লিখিত কাগজ সম্পাদন করে ।   আলাল মিয়া ও জালাল মিয়া গং  সালিশের আপস মীমাংসা অমান্য করে  বিভিন্ন অপপ্রচার করছে বলে জানায় নুরুল ইসলাম গং । সকল অপপ্রচারের প্রতিবাদ জানিয়েছে নুরুল ইসলাম ও তার পরিবার ।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ




raytahost-demo
© All rights reserved © 2020
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD